ছেলেকে আসামি করে মায়ের মামলা

126

জোরপূর্বক জমি লিখে নেওয়ার চেষ্টা, বেধড়ক মারধর ও ভরণ-পোষণ না দেওয়ায় সন্তানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন ভুক্তভোগী মা। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) বাঘা উপজেলার চকবাউসা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই গ্রামের প্রয়াত মোমিন উদ্দিনের স্ত্রী হাওয়া বেগম (৬৫) তার ছেলে মানিক উদ্দিনের (৩৫) বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম। তিনি জানান, ভরণ-পোষণ আইনে বাঘা থানায় হাওয়া বেগম তার ছেলে মানিক উদ্দিনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করা হয়েছে।

জানা গেছে, মানিক তার মাকে ভরণ-পোষণ দিতেন না, উল্টো জমি লিখে না দেওয়ায় মাকে মারধর করতেন। ছেলের মারধরের কারণে গত বৃহস্পতিবার আহত হন হাওয়া বেগম। শারীরিক ও মানসিক কষ্ট সহ্য করতে না পেরে নিরুপায় হয়ে তিনি মামলাটি করেন।

পুলিশ জানায়, হাওয়া বেগম ১৫ বছর আগে স্বামীকে হারিয়েছেন। স্বামী মৃত্যুর সময় দুই ছেলে এবং দুই মেয়েসহ ২ একর ৭৩ শতাংশ জমি রেখে যান। পরবর্তীতে জমি সবার মধ্যে ভাগ করে দেন। বর্তমানে মেয়েদের দেওয়া জমি জোরপূর্বক ভোগদখল করছেন তার বড় ছেলে মানিক।

তারপরও মানিক মায়ের নামে থাকা সম্পত্তি জোরপূর্বক লিখে নিতে চান। কিন্তু মা হাওয়া বেগম জমি লিখে না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার তাকে বেধড়ক পেটান। পরবর্তীতে নিরুপায় হয়ে মা তার মেয়ে ও জামাইকে সঙ্গে করে বাঘা থানায় ভরণ-পোষণ আইনে তার ছেলের নামে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, মামলায় অভিযুক্ত আসামি মানিককে শুক্রবার (৫ মার্চ) সকালে আটক করা হয়েছে। এদিন তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। এ ধরনের মামলা বাঘা থানায় এই প্রথম দায়ের করা হয়েছে বলে জানান ওসি।