আকরাম খান সুপারিস করেছেন শাহাদতের জন্য

100

২০১৯ সালে জাতীয় লিগে খুলনা ও ঢাকার ম্যাচে নিজ দলের খেলোয়াড়দের সাথে মারামারির যে ঘটনাটি ঘটে সেই অপরাধে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে রাজিবকে পাঁচ বছরের জন্য বহিষ্কার করে বিসিবি। কিন্তু খেলা ছাড়া রাজিবের জীবিকা নির্বাহের কোনো উপায় নেই। পড়ালেখাও তেমন করেননি যে অন্য কিছু করে সংসারের হাল ধরবেন। তার মধ্যে রাজিবের মা ক্যান্সারের শেষ স্তরের রোগী। মায়ের চিকিৎসাও করাতে পারছেন না টাকার অভাবে। যেখানে সংসারের খরচ চালাতেই হিমশিম খাচ্ছেন, সেখানে মায়ের চিকিৎসা করাবেন কীভাবে?

এসব কারণে শাস্তি থেকে পরিত্রাণ চেয়ে গেলো ২৩ ফেব্রুয়ারি পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে মাঠে খেলার অনুমতি চেয়ে বিসিবির কাছে আবেদন করেছিলেন রাজিব। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে ৮ মার্চ, সোমবার বিসিবির অপরেসন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান পেসার শাহাদত হোসেন রাজিবের শাস্তি মওকুফের জন্য শৃঙ্খলা কমিটিকে সুপারিশ করেছেন ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান।

এখন তাদের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতে হবে শাহাদাত হোসেন রাজিবকে। তার শাস্তি মওকুফ হলেই এবারের জাতীয় লিগ দিতে তিনি আবারও ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন। সাথে পারফর্মেন্স ভালো করলে জাতীয় দলের জন্যও বিবেচিত হতে পারে।