রাজশাহী ছোটমণি শিশু নিবাসে পাঠানো হয়েছে

92
রাজশাহী ছোটমণি শিশু নিবাসে পাঠানো হয়েছে

খুলনা থেকে ছেড়ে আসা কপোতাক্ষ ট্রেন আজ সোমবার দুপুরে যখন শেষ গন্তব্য রাজশাহী স্টেশনে পৌঁছায়, তখন ওই ট্রেনের মধ্যে এক শিশুকে একাই বসে থাকতে দেখেন রেলওয়ের এক কর্মচারী। ট্রেন থেকে যাত্রীরা নেমে গেলেও শিশুটি সেখানেই থেকে যায়। ওই কর্মচারী অপেক্ষা করতে থাকেন তার মা–বাবা বা অভিভাবকের জন্য। কিন্তু শিশুটিকে কেউ নিতে আসেনি।

পরে স্টেশন থেকে মাইকিং করা হয়। তাতেও সাড়া না পাওয়ায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রেলওয়ে পুলিশের কাছে বাচ্চাটিকে হস্তান্তর করা হয়। রেলওয়ে পুলিশ বাচ্চাটিকে আদালতের মাধ্যমে রাজশাহী ছোটমণি শিশু নিবাসে পাঠিয়েছে। শিশুটি মেয়ে, বয়স মাত্র ২ বছর।

রাজশাহী রেলওয়ে পুলিশ জানিয়েছে, শিশুটি কান্না করছিল। তারা শিশুটিকে পেয়ে প্রথম অবস্থায় এক নারী পুলিশ সদস্যের কাছে রাখে। এতে তার কান্না বন্ধ হয়ে যায়। সে দুই-একটি কথা বলতে পারে। নিজের নাম বলতে পারেনি। তাই শিশুটিকে আদালতে আবেদন করে রাজশাহীর ছোটমণি শিশু নিবাসে রাখা হয়েছে।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক আবদুল করিম বলেন, শিশুটিকে দেখে তাঁদের একজন কর্মচারী অভিভাবকের জন্য অপেক্ষা করেন। পরে স্টেশন থেকে মাইকিং করা হয়। কিন্তু কাউকে না পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশের হেফাজতে দেওয়া হয়।

রাজশাহী রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল বলেন, বাচ্চাটি কপোতাক্ষ ট্রেনের একটি বগিতে বসে ছিল। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার অভিভাবককে পাওয়া যায়নি। বাধ্য হয়ে শিশুটিকে আদালতে আবেদন করে রাজশাহী ছোটমণি শিশু নিবাসে পাঠানো হয়েছে।