মমতার সম্পদ ৫ বছরে প্রায় অর্ধেক কমেছে

128

ক্ষমতায় থাকাকালে গেলো পাঁচ বছরে সম্পদের পরিমাণ প্রায় অর্ধেক কমেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। নির্বাচনে কমিশনে দেয়া হলফনামায় উঠে আসে এই তথ্য।

রাজনৈতিক নেতাদের গুণিতক হারে সম্পদ বৃদ্ধিটাই যে দেশে দস্তুর সেখানে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর সম্পদ কমে হয়ে গেলো অর্ধেক। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী যে হলফনামা পেশ করেছেন তাতে তিনি নিজের মোট সম্পদের পরিমাণ জানিয়েছেন ১৬ লাখ ৭২ হাজার রুপি। যা গত বিধানসভা নির্বাচনে পেশ করা সম্পদের প্রায় অর্ধেক।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী তার সম্পদের পরিমাণ ৩০ লাখ ৭৫ হাজার রুপি বলে জানিয়েছিলেন। অর্থাৎ মুখ্যমন্ত্রীর সম্পদ কমেছে প্রায় ৪৫ দশমিক ১ শতাংশ।

এবার পেশ করা হলফনামা অনুসারে, মুখ্যমন্ত্রীর হাতে নগদ রয়েছে ৬৯ হাজার ২৫৫ রুপি। ব্যাংকে রয়েছে ১৩ লাখ ৫৩ হাজার রুপি। অন্যান্য বিনিয়োগ রয়েছে ১৮ হাজার ৪৯০ রুপি। গয়না রয়েছে ৪৩ হাজার ৮৩৭ রুপি।

গত বারের তুলনায় এবার লক্ষ্যণীয়ভাবে কমেছে মুখ্যমন্ত্রীর ব্যাংকে জমার পরিমাণ। গত বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর ব্যাংকে জমা ছিল ২৭ লাখ ৬১ হাজার রুপি। কমেছে অন্যান্য বিনিয়োগের পরিমাণও। ২ লাখ ১৫ হাজার থেকে কমে তা হয়েছে মাত্র ১৮ হাজার ৪৯০ রুপি। তবে বেড়েছে গয়নার মূল্য। ২৬ হাজার ৩৮০ রুপি থেকে বেড়ে তা হয়েছে ৪৩ হাজার ৮৩৭ রুপি। যদিও এই সময়ে স্বর্ণের দামও অনেকটা বেড়েছে।

দেশে সব থেকে কম সম্পদশালী মুখ্যমন্ত্রীদের একজন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার আরও কমলো তার সম্পদের পরিমাণ। যা গোটা দেশে নজির বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তবে আপাতত কয়েকদিন বিশ্রামে থাকতে হবে। ব্যবহার করতে হবে ক্র্যাচ অথবা হুইল চেয়ার।

গত বুধবার রাতে, নন্দীগ্রামে প্রচারণা চালানোর সময় ধাক্কাধাক্কিতে পড়ে যান তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী। পরে তাকে কলকাতায় এনে এসএসকেএমে ভর্তি করা হয়।