রূপনগর, আদাবরে করোনা ঝুঁকি সবচেয়ে বেশী

244

ঢাকা সিটি করপোরেশনের থানাভিত্তিক ২৭ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত করোনা শনাক্তের ভিত্তিতে এই পরিসংখ্যান করা হয়। এতে দেখা যায়, ঢাকায় এখন সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছে রূপনগর ও আদাবর থানা।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দিক থেকে ঢাকায় রূপনগর ও আদাবর থানাকে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করেছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)।

ঢাকায় করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতি নিয়ে শনিবার প্রকাশিত পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানানো হয়।

ঢাকা সিটি করপোরেশনের থানাভিত্তিক ২৭ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত করোনা শনাক্তের ভিত্তিতে এই পরিসংখ্যান করা হয়। এতে দেখা যায়, ঢাকায় এখন সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছে রূপনগর ও আদাবর থানা। এই দুই থানার মধ্যে পরীক্ষার বিপরীতে রূপনগরে শনাক্তের হার ৪৬ শতাংশ এবং আদাবরে ৪৪ শতাংশ।

রাজধানীর আরও ১১টি থানায় ৩০ শতাংশের ওপর আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। ২৩টি থানায় আক্রান্তের হার ২০ শতাংশের ওপরে; সাতটি থানায় ১১ শতাংশের ওপরে।

৩০ শতাংশের ওপরে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে- শাহআলী, রামপুরা, তুরাগ, মিরপুর, কলাবাগান, তেজগাঁও, মোহাম্মদপুর, মুগদা, গেন্ডারিয়া, ধানমন্ডি, হাজারীবাগ, নিউ মার্কেট, চকবাজার, সবুজবাগ, মতিঝিল, দারুসসালাম ও খিলগাঁও।

২০ শতাংশের ওপরে রোগী শনাক্ত হয়েছে- শাহবাগ, বংশাল, লালবাগ, শাহাজানপুর, রমনা, কামরাঙ্গীরচর, শ্যামপুর, বাড্ডা, বনানী, উত্তরা, শেরেবাংলা নগর, সূত্রাপুর, যাত্রবাড়ী, পল্লবী, কাফরুল, দক্ষিণখান, খিলক্ষেত, কদমতলী, উত্তরা পূর্ব ও পল্টন থানায়।

১১ শতাংশের ওপরে শনাক্ত হয়েছে- তেজগাঁও উত্তর, পশ্চিম ভাষানটেক, গুলশান, ক্যান্টনমেন্ট, তেজগাঁও ও বিমানবন্দর থানায়।

গত বছর মার্চের শেষের দিকে সংক্রমণের হারের ভিত্তিতে আইইডিসিআর শনাক্তের ম্যাপ তৈরি করে। এর ভিত্তিতেই সে সময় পুরান ঢাকা ও রাজাবাজার লকডাউনের আওতায় আসে।