অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট আরও ৭ দিন বন্ধ

41

আকাশপথে চলাচলে চলমান বিধিনিষেধ বাড়িয়েছে সরকার। ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক পথগুলোতে বিমান চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে এ সময়ে কার্গো বিমান, বিশেষ বা চার্টার্ড ফ্লাইট, এয়ার অ্যাম্বুলেন্স চলাচল করতে পারবে। এ ছাড়া প্রবাসী কর্মীদের কর্মস্থলে পাঠাতে বিশেষ ফ্লাইটও চলবে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে।

বিকেলে বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, সরকারের চলমান বিধিনিষেধ বাড়ানোয় সে অনুযায়ী আকাশপথে চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা বাড়ানো হয়েছে। তবে এ সময়ে প্রবাসীদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট চলবে। তিনি বলেন, এ ছাড়া যারা ভিজিট ভিসায় চাকরির উদ্দেশে আবুধাবি যাচ্ছিলেন, তাঁরাও যেতে পারবেন।বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলাচল ও কাজে বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। আজ সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এক সভায় এ পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে তা এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ বিষয়ে দু-এক দিনের মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

সরকারের এ সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে বেবিচক ২২ থেকে ২৮ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বাংলাদেশে অভ্যন্তরীণ সব ফ্লাইট ও আন্তর্জাতিক পথে ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বেবিচক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রবাসীদের দেশে আনা ও নেওয়ার জন্য সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সিঙ্গাপুর, কাতার ও ওমানের বিশেষ ফ্লাইটগুলো আগের মতোই চলাচল করবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ায় সরকারের চলাচলে বিধিনিষেধ অনুযায়ী ৫ এপ্রিল থেকে দেশে অভ্যন্তরীণ সব পথে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ আছে। তবে চালু ছিল আন্তর্জাতিক পথে ফ্লাইট চলাচল। এরপর ১৪ এপ্রিল ভোর থেকে আন্তর্জাতিক সব পথে ফ্লাইট চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় বেবিচক। তবে দেশে আটকে পড়া প্রবাসী শ্রমিকদের কথা ভেবে সরকার ১৭ এপ্রিল থেকে সৌদি আরব, ওমান, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সিঙ্গাপুরে শতাধিক বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয়।