ঋণের কিস্তি পরিশোধের শর্ত শিথিল বাংলাদেশ ব্যাংকের

33

করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা সামলাতে ঋণের কিস্তি পরিশোধের শর্ত শিথিল করলো বাংলাদেশ ব্যাংক। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকরা ৩ মাস পর ঋণের কিস্তি দিলেও ঋণখেলাপি বলা যাবে না- বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে জারি করা সার্কুলারে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সার্কুলার জারি করে সব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নতুন প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত বকেয়া কিস্তিকে খেলাপি দেখাতে পারবে না দেশের ব্যাংকগুলো।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে দেশের সরকারি বেসরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের এমন নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও গ্রাহকের সম্পর্কের ভিত্তিতে মার্চ ২০২১ পর্যন্ত ঋণের কিস্তি ৩০ জুন ২০২১ তারিখের মধ্যে পরিশোধ করা যাবে। এই সময়ের কোন কিস্তি বকেয়া থাকলে ওই ঋণকে খেলাপি না করারও নির্দেশনা রয়েছে। সেই সঙ্গে ওই সময়ে ঋণের সুদ বা মুনাফার ওপর কোনো ধরণের ফি, চার্জ বা অতিরিক্ত কোনো অর্থ আদায় করা যাবে না বলেও নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এছাড়া, চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদ ৭ দিন বাড়ায় সে অনুযায়ী গেলো সপ্তাহের মতোই সীমিত পরিসরে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েও প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।