লঙ্কান ভবিষ্যত আর্থারের চোখে

92

দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচে প্রথম পয়েন্ট অর্জন করতে শ্রীলঙ্কার তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের মোকাবিলা করতে হবে টাইগারদের। বাংলাদেশের সামনে চার চ্যালেঞ্জের নাম- ভানিন্দু হাসারাঙ্গা, পাথুম নিসাঙ্কা, ওশাদা ফার্নান্দো এবং লাসিথ এম্বুলদেনিয়া। যাদের লঙ্কান ক্রিকেটের ভবিষ্যত হিসেবে মনে করেন প্রধান কোচ মিকি আর্থার।

কুমার সাঙ্গাকারা-মহেলা জয়াবর্ধনেদের বিদায়ের পর খুব ভালো অবস্থানে নেই শ্রীলঙ্কা। মিকি আর্থারের দাবি, তরুণদের হাত ধরে এই বাজে অবস্থা কাটিয়ে উঠবে লঙ্কান ক্রিকেট।

জনপ্রিয় ক্রিকেট সংবাদমাধ্যম ক্রিকইনফোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শ্রীলঙ্কার চার তরুণ ক্রিকেটার হাসারাঙ্গা, পাথুম নিসাঙ্কা, ওশাদা ও এম্বুলদেনিয়াকে নিয়ে কথা বলেন আর্থার। তিনি বলেন, ‘ওশাদা এরইমধ্যে নিজের অবস্থান জানান দিয়েছে। বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ তিন নম্বর পজিশনে ক্রমেই উন্নতি করে যাচ্ছে সে। আমি মনে করি কুশল মেন্ডিসও আমাদের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়।তার সেরাটা আদায় করাও আমার পরিকল্পনায় রয়েছে। পাথমু নিসাঙ্কাও ভালো অবস্থানে রয়েছে। অবশ্যই টেস্ট ক্রিকেটে সে শ্রীলঙ্কা দলকে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং ওয়ানডেতে তার বড় ভূমিকা থাকবে। আর টি-টোয়েন্টিতে কীভাবে নিজেকে এগিয়ে নেয় সেটাই এখন দেখার।’

স্পিন বোলিংয়েরে ক্ষেত্রে আর্থারের চোখ হাসারাঙ্গা ও এম্বুলদেনিয়ার ওপর। গত কয়েক বছরে শ্রীলঙ্কার হয়ে তিন ফরম্যাটেই দারুণ পারফরর্ম করেছেন হাসারাঙ্গা। যেকোনো কঠিন পরিস্থিতিতে সামনে থেকে পারফর্ম করার গুণের কারণেই আর্থারে অধিক প্রিয় এই স্পিনিং অলরাউন্ডার। আর্থার বলেন, ‘একজন ভালো ক্রিকেটারের যত গুণ দরকার, সবই আছে হাসারাঙ্গার মধ্যে। দলের প্রয়োজনে সে বল এবং ব্যাট হাতে দারুণ।’

বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। আইসিসি আয়োজিত বিশ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ এ দুই ম্যাচ।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে এ পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচ খেলে শূন্য পয়েন্ট বাংলাদেশের। অন্যদিকে ১০ ম্যাচে ১ জয় ও ৩ ড্রতে ১২০ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশের ঠিক ওপরে শ্রীলঙ্কার অবস্থান।
তবে আগেই দুই ফাইনাল্টি নির্ধারণ হয়ে যাওয়ায়, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার সিরিজের ফল কোনো প্রভাব ফেলবে না টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে।