হেফাজতের নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা

97

হেফাজতে ইসলামের নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

তিন সদস্যের এই কমিটিতে প্রধান উপদেষ্টা করা হয়েছে আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীকে। আমির করা হয়েছে সদ্য বিলুপ্ত কমিটির আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে। এ ছাড়া মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন আল্লামা নুরুল ইসলামকে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেন নতুন আহ্বায়ক কমিটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরীর ব্যক্তিগত সহকারী ইনআমুল হাসান ফারুকী। পরে হেফাজতে ইসলামের ফেসবুক পেজেও কমিটি গঠনের তথ্য আপলোড করা হয়।

ইনআমুল হাসান ফারুকী বলেন, ‘চলমান অস্থির ও নাজুক পরিস্থিতি বিবেচনায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ও মহানগর কমিটি বিলুপ্তি ঘোষণা পরবর্তী উপদেষ্টা কমিটির পরামর্শেক্রমে ৩ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এই আহ্বায়ক কমিটি অতি দ্রুত হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবে।’

সদ্য বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম মহাসচিব নাছির উদ্দিন মুনীর বলেন, শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মূল ব্যক্তিত্ব ও প্রধান উপদেষ্টা এবং চট্টগ্রামের আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া আজিজুল উলুম বাবুনগরের মহাপরিচালক। তিনি মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরীর মামা।


অন্যদিকে জুনায়েদ বাবুনগরী হচ্ছেন হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষা পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। তিনি সদ্য বিলুপ্ত কমিটির আমির ছিলেন এবং সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব।

আহ্বায়ক কমিটিতে মহাসচিব ঢাকার খিলগাঁও মাখজানুল উলুম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম জিহাদী। তিনি সদ্য বিলুপ্ত কমিটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ছিলেন।

রোববার রাতে ফেসবুক পেজে ১ মিনিট ২০ সেকেন্ডের এক ভিডিওবার্তায় কওমি মাদ্রাসাকেন্দ্রিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন জুনায়েদ বাবুনগরী, যিনি গত নভেম্বরের সম্মেলনের পর সংগঠনের আমির হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

সংক্ষিপ্ত বার্তায় তিনি বলেন, ‘দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে বড় অরাজনৈতিক সংগঠন, দ্বীনি সংগঠন ইমান আক্বিদার সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কমিটিকে বিলুপ্ত… কেন্দ্রীয় কমিটির কিছু গুরুত্বপূর্ণ সদস্যদের পরামর্শক্রমে কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হলো।

‘ইনশাআল্লাহ আগামীতে আহ্বায়ক কমিটির মাধ্যমে আবার হেফাজতে ইসলামের কার্যক্রম শুরু হবে।’

বাবুনগরী কেন এই সিদ্ধান্ত নিলেন তার কোনো কারণ ব্যাখ্যা করা হয়নি। তবে গত কয়েক দিনে হেফাজতের বেশ কয়েকজন নেতা সংগঠন থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। আরও বহু নেতা পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছেন।