১৬ করোনা পজিটিভসহ ১২৯৬ জন বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরেছেন

95

ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞায় আটকেপড়া বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রীর সংখ্যা দিন দিন কমতে শুরু করেছে। কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশি উপ-হাইকমিশন থেকে এনওসি নিয়ে গত এক সপ্তাহে ১ হাজার ২৯৬ জন পাসপোর্ট যাত্রী বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন দিয়ে দেশে ফিরেছেন। এদের মধ্যে ১৬ জনের করোনা পজিটিভ।

অপরদিকে বাংলাদেশে আটকা পড়াদের মধ্যে ১২০ জন পাসপোর্ট যাত্রী ভারতে ফিরে গেছেন। এর মধ্যে সোমবার দুপুর পর্যন্ত ভারত থেকে বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রী দেশে ফিরেছে ৮৮ জন আর ভারতীয় ফিরে গেছে মাত্র ৪ জন।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব। তিনি জানান, বাংলাদেশ সরকার ভারতের করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট সংক্রমণ রোধে ২৬ এপ্রিল থেকে দুই সপ্তাহের জন্য ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এতে করে ভারতে আটকা পড়ে কয়েক হাজার বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রী। সেসব আটকা পড়া পাসপোর্ট যাত্রীদের নিজ দেশে ফিরতে হলে কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশি উপ-হাইকমিশন থেকে এনওসি নিয়ে ও ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আরটিপিসিআর ল্যাবের করোনা টেস্টের সনদ নিয়ে দেশে ফেরার নির্দেশনা দেন বাংলাদেশ সরকার।

সেই মোতাবেক গত এক সপ্তাহে ১ হাজার ২৯৬ জন বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রী দেশে ফিরেছেন এবং বাংলাদেশে আটকা পড়া ১২০ জন ভারতীয় পাসপোর্ট যাত্রী দেশে ফিরে গেছেন।

তিনি আরও জানান, ভারত থেকে আসা এসব পাসপোর্ট যাত্রীদের বেনাপোলে বিভিন্ন হোটেল, ঝিকরগাছা গাজিরদরগা এতিম খানায় ও যশোরের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে। যেসব যাত্রী করোনায় আক্রান্ত বা উপসর্গ নিয়ে দেশে ফিরছেন তাদের যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে করোনা ইউনিটে পাঠানো হচ্ছে।

তিনি জানান, বাংলাদেশ সরকার ভারতের করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণ রোধে ২৬ এপ্রিল থেকে দুই সপ্তাহের জন্য ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের অফিসার ডা. আশরাফুজজামান জানান, ভারত থেকে আসা করোনায় আক্রান্তদের ১৬ জন রোগীকে যশোর করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। ভারত ফেরত রোগীদের বিশেষ ব্যবস্থায় হোটেলে রাখা হয়েছে এবং তাদের চিকিৎসার জন্য জরুরি টিম কাজ করছে।