নোয়াখালীর হাতিয়ায় এক স্কুলশিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা

40

নোয়াখালীতে এক স্কুলশিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে একজনকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

জেলার হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, রোববার বিকালে তাকে পেটানোর পর হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোরে তিনি মারা যান।

নিহত কাজল কৃষ্ণ দাস (৫৫) হাতিয়া উপজেলার সুখচর ইউনিয়নের চর আমানুল্লা গ্রামের বসন্ত কুমার দাসের ছেলে। এলাকার ইন্দুরসরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছিলেন তিনি।

পুলিশ জানায়, পাওনা টাকা পরিশোধ না করায় একই এলাকার এক ব্যক্তির সঙ্গে রোববার বিকালে কাজল কৃষ্ণ দাসের কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ওই ব্যক্তি তাকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে। প্রথমে তাকে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। রাত ২টার দিকে অবস্থার অবনতি হলে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর ৪টার দিকে তিনি মারা যান।

ওসি বলেন, শিক্ষককে পেটানোর অভিযোগে রোববার রাতেই শান্ত মজুমদার (৪০) নামে এক ব্যক্তি তার বাড়ি থেকে আটক করেছে পুলিশ। অন্য কেউ জড়িত আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী সদর হাসপাতল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি আবুল খায়ের।