ভারতীয় সংগীতশিল্পী শ্রেয়া ঘোষাল মা হলেন

116

মা হলেন ভারতীয় সংগীতশিল্পী শ্রেয়া ঘোষাল। আজ শনিবার বিকেলে তিনি পুত্রসন্তানের মা হন। ইনস্টাগ্রাম ও ভেরিফায়েড ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে শ্রেয়া ঘোষাল নিজেই জানালেন এই সুখবর। তিনি লিখেছেন, ‘আজকের সুন্দর বিকেলে সৃষ্টিকর্তা আমাদের একটি বাবু উপহার দিলেন। এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। শিলাদিত্য (শ্রেয়া ঘোষালের জীবনসঙ্গী), আমি আর আমাদের পরিবারে খুশির বন্যা বইছে। আপনাদের আশীর্বাদের জন্য ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা।’

শ্রেয়া ঘোষাল যে পুত্রসন্তানের মা হবেন, তা আগেই জানিয়েছিলেন তিনি। শ্রেয়া ঘোষালের ‘শ্রেয়া’ আর শিলাদিত্যর ‘দিত্য’ মিলিয়ে ছেলের জন্মের আগেই তাঁর নাম রেখেছিলেন শ্রেয়াদিত্য। সেই নাম প্রকাশ করে লিখেছিলেন, ‘আমাদের সন্তান শ্রেয়াদিত্য আসছে। আপনাদের সবার সঙ্গে এই আনন্দের খবর ভাগ করে সেই আনন্দ শত গুণ বেড়ে গেল। শিলাদিত্য ও আমি খুবই আনন্দিত। জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করতে যাচ্ছি। নতুন মাত্রা যুক্ত হচ্ছে আমাদের জীবনে। নবযাত্রায় আপনাদের প্রার্থনা আর ভালোবাসা একান্ত কাম্য।’

৪৬ মিনিট হলো মা হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শ্রেয়া। এর মধ্যেই দেড় লাখের বেশি মানুষ এই পোস্টে ‘লাভ’ দিয়েছেন। মন্তব্যের উঠানে বয়ে যাচ্ছে শুভেচ্ছা বার্তার ঢেউ। শ্রেয়ার বান্ধবীরা গত এপ্রিলে তাঁর জন্য বিভিন্ন খাবার রান্না করে ‘বেবি শাওয়ার’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। লকডাউনেও থেমে থাকেনি কোনো আনুষ্ঠানিকতা।
২০১৫ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করেন শ্রেয়া ও শিলাদিত্য। বিয়েতে দুই পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। শিলাদিত্য শ্রেয়ার ছোটবেলার বন্ধু। বিয়ের আগে ১০ বছর ধরে প্রেম করেছিলেন দুজন।

২০০০ সালে ভারতের জিটিভির ‘সা রে গা মা পা’ সংগীত প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন শ্রেয়া ঘোষাল। ২০০২ সালে সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘দেবদাস’ ছবিতে প্লেব্যাকের মাধ্যমে চলচ্চিত্রের গানে অভিষেক ঘটে তাঁর। এই ছবির পাঁচটি গান গাওয়ার সুযোগ হয় তাঁর। আর পাঁচটিই হিট! সে–ই শুরু। আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। এই মুহূর্তে তিনি বলিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় সংগীত তারকাদের একজন। নানা ভাষায় গান গাওয়ার জন্যও পরিচিতি আছে তাঁর। প্রতিটি গানের জন্য শ্রেয়া নেন ২১ থেকে ২৪ লাখ টাকা।

চার শতাধিক চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করেছেন শ্রেয়া ঘোষাল। গান গেয়েছেন বাংলা, নেপালি, তেলেগু, তামিল, ভোজপুরি, মারাঠি, কন্নড়, পাঞ্জাবি, গুজরাটি, মালয়ালম, ওডিশি ও অসমিয়া ভাষায়। শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী হিসেবে চারবার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন এই গুণী শিল্পী।

ফোর্বস ম্যাগাজিনের ভারতের সেরা ১০০ তারকার তালিকায় পাঁচবার নাম উঠেছে শ্রেয়ার। প্রথম ভারতীয় শিল্পী হিসেবে মাদাম তুসোর মিউজিয়ামেও ঠাঁই হয়েছে তাঁর।