ভারত তিন দেশের অমুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়া শুরু করল

93

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যুতে আরও এক কদম এগিয়ে এলো ভারত। ভারতীয় নাগরিকত্ব লাভের জন্য প্রতিবেশি মুসলিম প্রধান দেশ বাংলাদেশ, আফগানিস্তান এবং পাকিস্তান থেকে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের কাছে আবেদন পত্র চেয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। ইতোমধ্যে এই বিষয়ে গেজেট নোটিফিকেশন জারি করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৮ মে) এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ভারতে শরণার্থী হিসেবে যাওয়া অমুসলিমরা দেশটির নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবেন। গুজরাট, রাজস্থান, ছত্তীসগঢ়, হরিয়ানা ও পাঞ্জাবের ১৩টি জেলায় বসবাসকারী হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ প্রভৃতি ধর্মের বাসিন্দারা এ আবেদনের জন্য যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নাগরিকত্ব আইন ১৯৫৫ এবং ২০০৯ সালের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের আওতায় শিগগিরই এই নির্দেশনা কার্যকর করতে হবে। যদিও এখনও পর্যন্ত ২০১৯ সালের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন চালু করা সম্ভব হয়নি কেন্দ্রের তরফে।

২০১৯ সালে ভারতের মুসলিমবিদ্বেষী নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। এই আইনের আওতায় ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যে সব হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, পারসি ও খ্রিস্টান অর্থাৎ অমুসলিমরা ভারতে গেছে, তাদেরকে দেশটির নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। এ নিয়ে দেশ-বিদেশে ব্যাপক সমালোচনা হলেও নিজ অবস্থানে অনড় থাকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার।