মোস্ট ওয়ান্টেড‘বাঘ হাবিব’ গ্রেফতার

39

সুন্দরবনের ৭০টি বাঘ হত্যাকারী মোস্ট ওয়ান্টেড হাবিব তালুকদার (৫০) ওরফে বাঘ হাবিবকে গ্রেফতার করেছে বাগেরহাটের শরণখোলা পুলিশ।  

শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বনসংলগ্ন মধ্য সোনাতলা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।  

সুন্দরবন বিভাগের তথ্যমতে, গত ২০ বছরে কম করে হলেও ৭০টি বাঘ মারা পড়েছে তার হাতে। তার নামে ৯টি বন অপরাধের মামলা রয়েছে।

এর মধ্যে তিনটিতে রয়েছে গ্রেফতারি পরোয়ানা। বাঘ হাবিবের বাবার নাম মৃত কদম আলী তালুকদার। 

পুলিশ বলছে, বাঘ হাবিব পলাতক ছিলেন। মাঝেমধ্যে গোপনে বাড়িতে এসে অন্যের ঘরে ঘুমাতেন।

শুক্রবার রাতে সে প্রতিবেশী রফিকুলের বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে অবস্থান করছিলেন। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রাত আড়াইটা দিকে শরণখোলার মধ্য সোনাতলা গ্রামে অভিযান চালিয়ে রফিকুলের বারান্দায় শোয়া অবস্থায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) মো. জয়নাল আবেদীন জনান, হাবিব তালুকদার বাঘ হাবিব নামে সুন্দরবন বিভাগের তালিকাভুক্ত অপরাধী। তার হাতে গত ২০ বছরে কম করে হলেও ৭০টি বাঘ মারা পড়েছে বলে এর আগে বন বিভাগের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

তাকে বহু আগে থেকেই সুন্দরবনে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তার পরও গোপনে বনে ঢুকে বাঘসহ বন্যপ্রাণি শিকার করে। তার নামে একাধিক মামলা থাকার পরও এই অপরাধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছিল। বাঘ হাবিবের পেছনে একাধিক শক্তিশালী চক্র জড়িত রয়েছে। তার নামে ৯টি বন অপরাধের মামলা রয়েছে। এর মধ্যে তিনটিতে গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে। বাঘ হত্যাকারী হাবিব সুন্দরবন বিভাগ ও পুলিশের কাছে মোস্ট ওয়ান্টেড। 

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বলেন, সুন্দরবনে একের পর এক বাঘ হত্যাকারী হাবিবের নামে শরণখোলা থানায় তিন ওয়ারেন্ট ছিল। তাকে দীর্ঘদিন ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে সোর্সের মাধ্যমে তাকে গ্রেফতার করে শনিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।