দেশের পতাকা ও দলকে ভালোবাসি : জামাল

82

ভারতের চেয়ে শক্তিমত্তায় অনেক পিছিয়ে। র‌্যাংকিংই দুই দলের পার্থক্য বোঝানোর জন্য যথেষ্ট। ভারত যেখানে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১০৫ নম্বরে, বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৬। অর্থাৎ ৮১ ধাপ পেছনে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

তবুও বাংলাদেশ দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স প্রত্যাশার মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে অনেকখানি। ভারতের বিপক্ষেও তাই জয় কিংবা নিদেনপক্ষে ড্র আশা করেছিলেন সমর্থকরা।

সেটা হয়নি। ৭ জুন কাতারে বিশ্বকাপ বাছাইর্বের ম্যাচে ভারতের কাছে ২-০ গোলে হেরে গেছে বাংলাদেশ। অথচ এই ম্যাচেও শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে ৭৯ মিনিট পর্যন্ত আটকে রেখেছিল লাল-সবুজ পতাকাধারীরা।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে গোলমুখে ভারতীয়দের জোয়ার রুখতে পারেনি বাংলাদেশের ডিফেন্স। ৭৯ মিনিটে প্রথম গোল করেন ছেত্রী। এরপর খেলা শেষ হওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তে (৯০ +২ মিনিটে) আবারও গোল করেন ভারত অধিনায়ক।

ভারতের কাছে এই হার অপ্রত্যাশিত না হলেও মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে সমর্থকদের। দলের কাছে যে তাদের অনেক বেশি প্রত্যাশা ছিল, সেটি বুঝতে পারছেন না বাংলাদেশের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াও।

আজ এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে সমর্থকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছেন জামাল। জানিয়েছেন, দেশ ও দেশের পতাকাকে কতটা ভালোবাসেন তিনি। ভবিষ্যতে ভালো ফল আসবে, এমন প্রত্যাশা এই ফুটবল সুপারস্টারের।

জামাল ভূঁইয়া তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘প্রত্যাশিত ফলাফল ও নৈপুণ্য অর্জিত না হওয়ায় আমরা সবাই হতাশ। আমরা চাইলে সমালোচনা করতে পারি ম্যাচে কি উচিত হয়নি আমাদের এবং এটাই স্বাভাবিক যখন প্রতিপক্ষ আচমকাই ৭৯ মিনিটে গোল দিয়ে বসে, যা খুব হতাশার। তাও আমাদের এগিয়ে যেতে হবে এবং আরো কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, এবং এটাই জীবন।’

সঙ্গে যোগ করেন, ‘আমি আমার দেশের পতাকা এবং আমার দলকে খুবই ভালবাসি, যা আমার ভাষায় বোঝানো কঠিন। নিশ্চয় কঠোর পরিশ্রম করলে আমাদের সময় আসবেই, ইনশাআল্লাহ।’