ম্যাক্রোঁকে চড় মারা সেই যুবককের ৪ মাস জেল

39

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে চড় মারা যুবককে ১৮ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ফরাসি এক আদালত। বৃহস্পতিবার আদালত ড্যামিয়েন ট্যারেল নামে ২৮ বছর বয়সী ওই যুবকের বিরুদ্ধে এই রায় দেন।

তবে মোট দণ্ডের ১৪ মাসের সাজা স্থগিত করা হয়েছে। ফলে তাকে মাত্র চার মাস কারাগারে কাটাতে হবে।

এর আগে মঙ্গলবার ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলীয় ড্রোম এলাকা পরিদর্শনে যান ম্যাক্রোঁ। এসময় তিনি স্থানীয় একদল বাসিন্দার সঙ্গে কুশল বিনিময় করতে ব্যারিকেডের কাছাকাছি যান। সেখানে উপস্থিত ট্যারেল হঠাৎ ফরাসি প্রেসিডেন্টের গালে সজোরে চড় মারেন। সাথে সাথে ম্যাক্রোঁকে ব্যারিকেডের সামনে থেকে সরিয়ে নেয়া হও এবং ট্যারেলকে আটক করা হয়।

আদালতে ট্যারেলের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আক্রমণের অভিযোগ আনা হয়। এই অভিযোগে সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড ও ৪৫ হাজার ইউরো ( ৪৬ লাখ ৩৩ হাজার টাকা) জরিমানার বিধান রয়েছে।

সরকারি কৌসুলিরা এই ঘটনাকে ‘ইচ্ছাকৃত সহিংসতামূলক কর্মকাণ্ড’ বলে অভিযোগ করেন।

ট্যারেল আদালতে বলেন, ম্যাক্রোঁ ওই এলাকা পরিদর্শনে যাওয়ার কয়েকদিন আগেই তার দিকে ডিম বা ক্রিম টার্ট ছুড়ে মারার পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি। তবে চড় মারার বিষয়টি পরিকল্পনায় ছিল না।

ফ্রান্সভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল বিএফএম টিভির সূত্রানুসারে, আদালতে ট্যারেল বলেন, ‘আমি মনে করি, ম্যাক্রোঁ সুস্পষ্টভাবে আমাদের দেশের পতনের প্রতিনিধিত্ব করেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যদি ম্যাক্রোঁকে সূর্যোদয়ের সময় দ্বন্দ্বযুদ্ধের জন্য চ্যালেঞ্জ করতাম, মনে হয় না তিনি রাজি হতেন।’

এদিকে, চড় খাওয়াকে ‘বিচ্ছিন্ন ঘটনা’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ। বৃহস্পতিবার বিএফএম টিভির সাথে সাক্ষাতকারে এই ঘটনাকে ‘নির্বুদ্ধিতামূলক, হিংসাত্মক কাজ’ বলে মন্তব্য করেন।

ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ থাকলেও ভোটারদের সাথে যোগাযোগে সফর অব্যাহত রাখবেন বলে জানান ম্যাক্রোঁ।

আগামী বছর এপ্রিলে ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সূত্র : আলজাজিরা