শনিবার থেকে পবিত্র হজ্ব শুরু

44

করোনাকালেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দ্বিতীয় হজ। সৌদি আরবের স্থানীয় সময় ১৭ জুলাই সন্ধ্যা থেকে মক্কায় পৌঁছাবেন হজ পালনের অনুমতি পাওয়া মুসল্লিরা। তাদের সার্বিক নিরাপত্তার পাশাপাশি স্বাস্থ্যগত দিক গুরুত্ব দিচ্ছে প্রশাসন। এ বছরেও বহির্বিশ্বের কেউ পবিত্র হজে যোগদানের অনুমতি পাননি।

চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। শনিবার (১৭ জুলাই) সন্ধ্যায়, পবিত্র নগরী মক্কায় পৌঁছবেন মুসল্লিরা। যাত্রাপথে তাদের সর্বাত্মক নিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্যগত দিক বিশেষ বিবেচনায় রাখছে কর্তৃপক্ষ। নীতিমালায় সংযুক্ত করেছে নিত্যনতুন প্রযুক্তিও।

রাওয়াহেল প্রতিষ্ঠানের মহা পরিচালক আবেদ আল হাইবি বলেন, নিঃসন্দেহে চলতি বছরের হজ একেবারেই আলাদা এবং ব্যতিক্রমী। হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত ৪টি অভ্যর্থনা সেন্টারের মাধ্যমেই কাবা শরীফে প্রবেশ করতে হবে সুযোগপ্রাপ্ত মুসলিমদের। সেগুলো হলো- আল জাইদি, আল নাসিম, আল শারায়েই এবং আল নূরিয়া। অত্যাধুনিক গেইট দিয়ে ঢোকার জন্যেও থাকবে মন্ত্রণালয়ের ইস্যুকৃত স্মার্ট কার্ড।

তিনি আরও বলেন, মহামারি চলাকালেও অর্ধলক্ষের মতো মুসলিম হজব্রত পালনে আবেদন করেছিলেন। বয়স এবং শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় মাত্র ৬০ হাজারকে অনুমতি দিয়েছে সরকার। শর্ত হচ্ছে, হজের আগেই নিতে হবে করোনার দুই ডোজ টিকা। কোন ধরনের শ্বাসকষ্টজনিত অসুখ থাকলেও আবেদন খারিজ হয়েছে।

মহামারির কারণে, দ্বিতীয় বছরের মতো বহির্বিশ্বের কোন মুসলিম হজের অনুমতি পাননি। সৌদিতে অবস্থানরত যারা হজের সুযোগ পাচ্ছেন তাদের জন্যও আছে কঠোর নিয়মকানুন। হাজি ক্যাম্পগুলোয় নিত্যনতুন প্রযুক্তির পাশাপাশি রাখা হয়েছে নিবিড় নজরদারি।

আগামী শনিবার থেকে শুরু পবিত্র হজ। সে অনুসারে, ১৯ জুলাই আরাফাত দিবস। সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে, আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় সৌদি আরবে মঙ্গলবার পশু কোরবানি করবেন মুসলিমরা।