শিল্পাও স্বামীর পর্ন ছবির সাথে জড়িত

65

আপাতত জেলে হেফাজতেই থাকতে হবে বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা এবং তার সহযোগী রায়ান থর্প।

শুক্রবার তাদের দু’‌জনকে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পেশ করা হয়। আদলতে হেফাজতের মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন করে প্রশাসন। ওই আবেদনে সায় দিয়ে ২৭ জুলাই পর্যন্ত রাজ এবং রায়ানকে হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। প্রশাসনের ধারণা, পর্ন ছবি থেকে আয়ের টাকা অনলাইন জুয়ায় খাটাতেন দু’জন। তার জন্য টাকা লেনদেন হতো অনলাইনে ইয়েস ব্যাংক এবং আফ্রিকার ইউনাইটেড ব্যাঙ্কের মারফত।

এই বিষয়ে নিয়ে তদন্তের জন্যই রাজ কুন্দ্রার হেফাজত বাড়ানোর আবেদন করা হয় আদালতে। প্রয়োজন বুঝে হেফাজতের মেয়াদ বাড়িয়েছে আদালত। ১৯ জুলাই পর্ন ছবি–কাণ্ডে গ্রেফতার হন রাজ। ২৩ জুলাই পর্যন্ত তাকে পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত।

রাজের স্ত্রী শিল্পা শেঠির এই বিষয়ে যোগসাজশের প্রমাণ মেলেনি। তাই তাকে এখনো সমন পাঠাচ্ছে না মুম্বই পুলিশ। বরং রাজের ভগ্নিপতি প্রদীপ বক্সির সংস্থা কেনরিন লিমিটেড নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রদীপ লন্ডনের বাসিন্দা।

তদন্ত করে জানা গেছে, এই সংস্থার জন্যেই দেশে পর্ন হাব খোলার কথা ভেবেছিলেন রাজ। রাজের তোলা ভিডিও উইট্রান্সফারে সংস্থার কাছে পৌঁছে গেলেই সেখান থেকে ছড়িয়ে দেয়া হত পর্ন ভিডিও। ভারতে এই ধরনের ছবি নিষিদ্ধ। তাই এই কৌশলে রমরমিয়ে ব্যবসা চালাতেন রাজ বলে জানা গেছে।