তারার মেলায় পিএসজির জয়

108

অবশেষে পূর্ণ গ্যালারির পার্ক দ্য প্রাসে লিওনেল মেসি। স্ত্রাসবোহর বিপক্ষে আর্জেন্টাইন তারকা খেলেননি। তবে, রামোস, ভাইনালদাম, হাকিমি আর দোনারুমাকে পাশে নিয়ে মাঠে দাঁড়িয়ে আলো ছড়িয়েছেন এলএমথার্টি। পরে নেইমার, ডি মারিয়াদের সাথে গ্যালারিতে বসে দেখেছেন স্ত্রাসবোহর সাথে পিএসজির ৪-২ গোলের জয়।

পার্ক দ্য প্রাসে তারার মেলা। তা তো হবেই ফুটবলের সব তারকা পাড়ি জমিয়েছেন পারি সা জার্মেইতে। চলতি মৌসুমে যারা লিওনেল মেসির মতো তারকাকে দলে ভিড়িয়েছে, তাদের প্রথম হোম ম্যাচটা তো আলো ঝলমলে হবেই।

জিয়ানলুইজি দোনারোমা, সার্জিও রামোস, জর্জিনিও ভাইনালদাম, আশরাফ হাকিমি আর সবশেষ লিওনেল মেসি চলতি মৌসুমে পিএসজির আকর্ষণীয় সাইনিং। ঠিক যেভাবে দল গুছিয়েছে ফরাসি জায়ান্টরা, সেভাবেই যেন সাজানো তাদের উন্মোচনের আয়োজন।

করোনা পরিস্থিতির শূন্য অথবা সীমিত আসনের দিন পেরিয়ে পূর্ণ আসনের পার্ক দ্য প্রাস। আর সবার মধ্যমণি একজন আর্জেন্টাইন সুপার স্টার। তিনি এলেন, ধন্যবাদ জানালেন প্যারিসবাসীকে। সাফল্যের জন্য পাশে চাইলেন সবাইকে।

তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসি বলেন, এই সপ্তাহটা আমার জন্য বিশেষ। প্যারিসে আসার পর থেকে সবাই যেভাবে স্বাগত জানাচ্ছে, আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে আমি আনন্দিত, উচ্ছ্বসিত। নতুন দলের সাথে আমার অনেক অনেক অর্জনের স্বপ্ন আছে। আশা করছি সবাই এক সাথে সবগুলো সফল করতে পারব।

আয়োজন শেষে অবশ্য মাঠে নামেননি মেসি, রামোস, দোনারোমা। স্ত্রাসবোহর বিপক্ষে খেলেছেন কেবল ভাইনালদাম ও আশরাফ হাকিমি।

গ্যালারিতে পাশাপাশি বসে দলের জয় দেখেছেন মেসি, নেইমার, ডি মারিয়ারা। ছিলেন গ্যালাক্টিকোর নেপথ্য কারিগর নাসের আল খেলাইফি।

ম্যাচের তিন মিনিটে স্বাগতিক দর্শকদের আনন্দে ভাসিয়েছেন আরেক আর্জেন্টাইন মাউরো ইকার্দি। গোল পেয়েছেন শীর্ষ তিন তারকার অন্যতম কিলিয়ান এমবাপ্পে। ২৭ মিনিটে ব্যবধান ৩-০ তে নিয়ে যান ড্রাক্সলার।

বিরতির পর স্ত্রাসবোহর টানা দুই গোল বেশ ভয় ধরিয়েছিল ৫০ হাজার আসনের প্রাক দ্য প্রাসে। কিন্তু ৮১ মিনিটে ইকার্দিকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন আলেকজান্দার জিকু। প্রতিপক্ষ ১০ জনে পরিণত হওয়া সুযোগটা ভালোই কাজে লাগিয়েছে স্বাগতিকরা। এমবাপ্পের অ্যাসিস্টে সারাবিয়া ৪-২ করেন স্কোরলাইন।